শেখ হাসিনার স্বপ্নকে বাস্তবায়নে সেইদিন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগই ঝাপিয়ে পড়েছিলো বিশ্বব্যাংকের সামনে

Taiyabur Rahman
By Taiyabur Rahman ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৭ ০৫:২৪

শেখ হাসিনার স্বপ্নকে বাস্তবায়নে সেইদিন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগই ঝাপিয়ে পড়েছিলো বিশ্বব্যাংকের সামনে

তৈয়বুর রহমান টনি নিউ ইর্য়ক থেকেঃ

পদ্মা সেতু নিয়ে দুর্নীতির মিথ্যা অভিযোগ আনার কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ যাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছে তাদের কাছে বিশ্বব্যাংককে ক্ষমা চাইতে হবে। পদ্মা সেতু দুর্নীতি মামলার নামে বাংলাদেশের বিরুদ্ধেই ষড়যন্ত্র করা হয়েছিল বলে মন্তব্য করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেছেন, ”পদ্মা সেতু প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগে করা মামলা দুর্নীতি মামলা নয়, এটি ছিল বাংলাদেশের বিরুদ্ধেই একটি ষড়যন্ত্র। দেশের উন্নয়ন ষড়যন্ত্রকারীদের ভালো লাগছিল না। এ কারণে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করতেই অভিযোগটি আনা হয়েছিল। ”পদ্মাসেতু দুর্নীতি মামলা প্রসঙ্গে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, যারা আমাদের সম্মানহানি করেছে সেই বিশ্বব্যাংকের বিরুদ্ধে মামলা করতে বলব। কানাডা তখন আমাদের অসহযোগিতা করেছিল। ‘পদ্মা সেতুর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের বিচারের দাবি’ আমি যখন নথিপত্র নিয়ে এসেছিলাম, তখনই বুঝেছিলাম এ মামলার ভিত্তি নেই।

 পদ্মাসেতু বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার স্বপ্ন ছিল। ২০০১ সালের ৪ জুলাই পদ্মাসেতুর ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয়েছিল। বিএনপি সরকার পরবর্তীতে এই কাজ বন্ধ করে দেয়। ২০০৯ সালে পদ্মাসেতুর জন্য সরকার ডিজাইনার নিয়োগ করে। ২০১১ সালে সরকার বিশ্বব্যাংকের সাথে ঋণচুক্তিতে আবদ্ধ হয়। ২০১২ সালে বিশ্বব্যাংক দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলে ১২০ কোটি টাকা ঋণ প্রত্যাহার করে নেয়। পাশাপাশি জাইকাসহ অন্যান্য দাতা সংস্থাগুলোও সরে দাঁড়ায়। দুর্নীতির অভিযোগ এনে অন্যায়ভাবে সেদিন তৎকালীন যোগাযোগ মন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে বলা হয়, পাশাপাশি যোগাযোগ সচিবসহ কয়েকজনকে গ্রেফতার করতে বলা হয়।

বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার স্বপ্নকে বাস্তবায় করতে সেইদিন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান নেতৃর্তে প্রবাসী নেতাকর্মীরা ঝাপিয়ে পড়েছিলো ওয়াশিংটনে বিশ্বব্যাংকে সামনে। চুক্তি বাতিলের প্রতিবাদে বিশ্ব ব্যাংকের সামনে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভে ফেটে পড়েছিলো। বিশ্বব্যাংকের সামনে এককভাবে কোনো দেশের নাগরিকদের এ ধরনের বিক্ষোভ দেখা যায়নি। কয়েক হাজার লোকের সমাবেশ হয়েছিলো সেই সময়। সময় দুপুর ১২:০০ থেকে বিকাল ৪:০০টা বহু নর/নারী ও শিশু/কিশোরদের সমাবেশ হয়েছিলো। যেটা এর আগে কখনোই দেখা যায় নাই।

 সেইদিন প্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতারা বিক্ষোভের সাথে বলেছিলেন, আমরা বিশ্বব্যাংকের কাছে ভিক্ষা চাইতে আসি নাই। পদ্মা সেতুর লোন পাইতে নয় আমাদের অধিকারের কথা বলতে এসেছি। বিশ্ব ব্যাংক লোন না দিলেও দেশের উন্নয়নের অংগীকারে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ আওয়ামী লীগ সরকার পদ্মা সেতু প্রকল্প বাস্তবায়ন করবেই। বাংলাদেশের মানুষ কোনো অন্যায় অপবাদ মেনে নেবে না।সমাবেশে বক্তরা বলেছিলেন বিশ্ব ব্যাংক লোন দেক আর না দেক দেশের উন্নয়নের অংগীকারে আওয়ামী লীগ সরকার পদ্মা সেতু প্রকল্প বাস্তবায়ন করবেই। বিশ্ব ব্যাংকের সামনে বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীদের তেজদীপ্ত এবং বিক্ষোভ ছিল চোখে দেখার মত। উক্ত সমাবেশ শেষে বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিমের বরাবরে লেখা একটি স্মারকলিপিও দেওয়া হয়েছিলো। প্রেসিডেন্টের পক্ষে বিশ্ব ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন একজন কর্মকর্তা বিক্ষোভস্থলে এসে তা গ্রহণ করেছিল। দলের পক্ষে স্মারকলিপিটি প্রদান করেছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান।

বিক্ষোভ সমাবেশে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ ছাড়াও নিউইয়র্ক সিটি ও ষ্টেট আওয়ামী লীগ, মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামী লীগ, মেরিল্যান্ড আওয়ামী লীগ, ভার্জিনিয়া ষ্টেট আওয়ামী লীগ,কানেকটিকাট আওয়ামী লীগ,পেনসালভানিয়া আওয়ামী লীগ, মিসিগান আওয়ামী লীগ, নিউজার্সী আওয়ামী লীগ, যুক্তরাষ্ট্র মহিলা লীগ, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগ, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জাসদ এবং জাতীয় পার্টির নেতা কর্মীরা অংশ গ্রহন করে। উল্লেযোগ্য নেতৃবৃন্দেও মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ,সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান, সহ সভাপতি আকতার হোসেন, সৈয়দ বসরাত আলি, মাহাবুবুর রহমান, সামছুদ্দিন আজাদ যুগ্ম সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ, ফারুক আহমেদ,মহিউদ্দীন দেওয়ান, আব্দুল হাসিব মামুন, হাজী এনাম, শিরিন আক্তার, শাহ বখতিয়ার, তৈয়বুর রহমান টনি, শাহানারা রহমান, মরহুম জসীমউদ্দিন মিঠু,, কামরুল হীরা, জহিরুল ইসলাম, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ড. শাহজাহান মাহমুদ, . মহসিন আলী, ডা. মাসুদুল হাসান, জাসদের মুসাব্বির নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগ সভাপতি মুজিবুর রহমান, সাধারন সম্পাদক শাহীন আজমল, আলমগীর হোসেন,মাহি চৌধুরী,নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের নুরুন নবী কমান্ডার, এমদাদ চৌধুরী, জাকিরিয়া চৌধুরী, মহিলা সম্পাদিকা মুর্শেদা কাঁকন, শামসুল আলম, কাজী আজিজুল হক খোকন, মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী মমতাজ শাহানা, শেফু রহমান, সেলিনা আজাদ, সেচ্ছাসেবক লীগের নুরুজ্জামান সরদার, রোমানা আখতার, মিসিগান আওয়ামী লীগের খালেদ আহমদ, খছরু উল্লাহ, অজিত কুমার দাস, মামুন সিদ্দীকি, শাহাব উদ্দীন, আবু মুসা, এ মোত্তালীব, মাহবুব আজমল, পেনসলভানিয়া আওয়ামী লীগের আবদুল হাই মিয়া, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা বস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডঃ সৈয়দ আবু হাসনাত, ডঃ আব্দুস সামাদ, ডাঃ আব্দুল হাকিম, আওয়ামী লীগ নেতা ইকবাল ইউসুফ, আব্দুর রাজ্জাক, মোহাম্মদ আলী, মোঃ মিয়াজী, মিসেস ইভা হাসনাত, যুবলীগ সভাপতি মিন্টো কামরুজ্জামান, রকিবুল চৌধুরী, মোঃ হাসান, ইকবাল আহমেদ সহ আরো অনেকে। সমাবেশে মাহমুদুন্নবী বাকী, সাদেক খান, নুরুল আমীন নুরু, আলমগীর সোহেল, হারুনুর রশীদ, আনোয়ার হোসেন প্রমুখের নেতৃত্বে মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামী লীগ,শেখ সেলিম, মোশারফ হোসেন দুলাল, মইনুল ইসলাম তাপসের প্রমুখের নেতৃত্ব মেরিল্যান্ড আওয়ামী লীগ, রফিক পারভেজ, জহিরুল ইসলাম রাসেল, জাকির হোসেন, মনির পাটওয়ারী প্রমুখের নেতৃত্বে ভার্জিনিয়া ষ্টেট আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা অংশ গ্রহন করে

বিক্ষোভে অংশগ্রহনকারী ব্যানার ফেস্টুন বহন করে। ”ওয়ার্ল্ড ব্যাংক ফান্ড ইজ আওয়ার রাইট অ্যাজ এ মেম্বার অফ ওয়ার্ল্ড ব্যাংক্‌, “ক্রেডিট জ আওয়ার রাইট নট ফ্যাভর“, “ওয়ার্ল্ড ব্যাংক মাষ্ট রিভিউ পদ্মা ব্রীজ লোন ক্যানসেলেশন“, “বাংলাদেশ ওয়ান্টস লোন নট ইনফ্রাইনমেন্ট অফ সভারেন্টিইত্যাদি মন্তব্য সম্বলিত ফেস্টুনগুলি অনেকের দৃষ্টি আকর্ষন করে। সমাবেশে সংক্ষিপ্ত বক্ত্যবে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান বলে

ছিলে, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত করার লক্ষ্যে বর্তমান সরকার কঠোর পরিশ্রম করছেন। দেশের উন্নয়নে প্রতিটি ইন্ডিকেটরই ইতিবাচক। এমনি পরিস্থিতিতে যেখানে বিশ্ব ব্যাংক উন্নয়ন সহযোগী হবে সেখানে জামাত বিএনপি চক্রের নানা বিভ্রান্তিতে পদ্মা সেতুর লোন বাতিল করে নিন্দনীয় কাজ করেছেন। সমাবেশে বক্তারা জোড় গলবলেছিলে, আমরা এখানে বিশ্বব্যাংকের কাছে কোন ভিক্ষা চাইতে আসি নাই। অন্যায়ের প্রতিবাদে লোন পাইতে আমাদের অধিকারের কথা বলতে এসেছি। সেদিন বিশ্ব ব্যাংকের সামনে বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীদের তেজদীপ্ত এবং বিক্ষোভ ছিল চোখে দেখার মত।

 

Taiyabur Rahman
By Taiyabur Rahman ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৭ ০৫:২৪
Write a comment

No Comments

No Comments Yet!

Let me tell You a sad story ! There are no comments yet, but You can be first one to comment this article.

Write a comment
View comments

Write a comment

Your e-mail address will not be published.
Required fields are marked*

সর্বশেষ খবর

আজকের দিন-তারিখ

  • বৃহস্পতিবার ( রাত ৮:৫৬ )
  • ২৩ নভেম্বর, ২০১৭
  • ৫ রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯
  • ৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ ( হেমন্তকাল )

বাংলা ক্যালেন্ডার

IMG_11152014_10_DEBDUT!