নাগরিক সংবর্ধনায় সব অর্জন ও পুরস্কার বাংলার মানুষকে উৎসর্গ করে দিলেন- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

MD Majumder
By MD Majumder অক্টোবর ৬, ২০১৫ ০৪:০৫

 

তৈয়বুর রহমান টনি ঢাকা সংসদ ভবন থেকেঃ-

জাতিসংঘের পরিবেশ বিষয়ক সর্বোচ্চ পদক ‘চ্যাম্পিয়ন্স অব দ্য আর্থ’ পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে নাগরিক সংবর্ধনা দিয়েছে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন। যৌথ উদ্যোগে গত সোমবার ৫ অক্টোবর বিকেলে জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আনিসুল হক।  দেশ ও সংস্কৃতিকে ঊর্ধ্বে তুলে ধরে মনোমুগ্ধকর ডিসপ্লে আর হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে শেখ হাসিনাকে নাগরিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানেনিজের সব অর্জন ও পুরস্কার বাংলার মানুষকে উৎসর্গ করে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমার সব অর্জন বাংলার জনগণের জন্য। বাবা-মা, ভাইদের হারিয়ে বাংলার মানুষের মাঝে বাবা-মায়ের স্নেহ, ভাইয়ের ভালোবাসা পেয়েছেন জানিয়ে তিনি বলেন, বাঙালি জাতী যাতে বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারে সেটাই আমাদের লক্ষ্য। জাতীয় সংসদ ভবনের সাউথ প্লাজায় আয়োজিত নাগরিক সংবর্ধনার জবাবে দেয়া সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের শুরুতেই তিনি এসব কথা বলেন।citi cor_svobon 12

বিকেল ৪টা ২৫ মিনিটে অনুষ্ঠানস্থলে পৌছালে ‘যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে,তবে একলা চলো রে’ গানের সুরে প্রধানমন্ত্রীকে মঞ্চে স্বাগত জানান অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি এলজিআরডি মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক , দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন ও ইমেরিটাস অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম। এর পর জাতীয় সঙ্গীত ছাড়াও পরিবেশ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর অর্জনের ওপর পাঁচ মিনিটের একটি তথ্যচিত্রও পরিবেশন করা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নাগরিকদের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছায় স্নাত করেন ঢাকার দুই নগর পিতা। প্রধানমন্ত্রীকে উৎসর্গ করে লেখা মানপত্র পাঠ করেন দুই শিশু শ্রেষ্ঠা ও ব্রত। মানপত্র পাঠ শেষে দুই শিশু প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দিলে প্রধানমন্ত্রী তাদের কাছে টেনে নিয়ে আদর করেন। এরপর দুই মেয়র আনিসুল হক ও মোহাম্মদ সাঈদ খোকন প্রধানমন্ত্রীর হাতে সবুজের প্রতীক হিসেবে একটি বৃক্ষ তুলে দেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নসাধ ক্ষুধামুক্ত,দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা গড়তে কাজ করে যাবো। এজন্য যেকোনো ত্যাগ করতে প্রস্তুত আছেন বলেও জানান তিনি। এদেশের মানুষের জন্য নিজের জীবন উৎসর্গ করেছেন জানিয়ে তিনি বলেন, আজ বাংলাদেশ বিশ্বসভায় মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্বসভায় বাংলাদেশের মানুষ মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে- এটাই আমার স্বপ্ন।citi cor_svobon 3
অনুষ্ঠানে সবচেয়ে মনোলোভা পর্বটিই ছিল ‘আর্থ প্যারেড’। এতে শতাধিক শিশু-কিশোর এমনকি অটিস্টিকসহ প্রতিবন্ধীরাও অংশ নিয়ে দেশাত্মবোধক এবং গ্রাম-বাংলার লোক সঙ্গীতের তালে তালে নেচে গেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানান। আর এই আর্থ প্যারেডে বাংলার লোকজ ঐতিহ্য, নাগরিক জীবন, গ্রাম-বাংলার জীবন, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও উপজাতীয়দের জীবনসহ সুজলা-সুফলা, শষ্য-শ্যামলা আমাদের এই প্রকৃতিক বৈশিষ্ট্যময় চিত্র তুলে ধরেন শিশু-কিশোররা। শেষের দিকে প্রতিবন্ধীরা শিশুরা জাতীয় পতাকা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সামনে নৃত্য পরিবেশ করলে প্রধানমন্ত্রী দাঁড়িয়ে তাদের উৎসাহিত করেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে এ দেশ স্বাধীন হয়েছে। বঙ্গবন্ধু এ দেশের মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে নিজের জীবন উৎসর্গ করেছেন। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর যখন আমি প্রিয় মাতৃভূমির মাটিতে পা রাখি তখন বাংলার মানুষই আমাকে সাহস জুগিয়েছে। দেশকে উন্নতির শিখরে নিয়ে যেতে হলে যা যা করা দরকার সবই করবে তার সরকার।

এলজিআরডি মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, শেখ হাসিনার দৃঢ় নেতৃত্ব, প্রজ্ঞা আর দূরদর্শিতার সফল অর্জনই হচ্ছে তার দুটি আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ। তার নেতৃত্বেই বাংলাদেশ গৌরবময় অধ্যায়ে যাবে, বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে। দেশবাসীকেও তার নেতৃত্বে দেশকে আরও এগিয়ে নিতে একটি অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে হবে।

ইমেরিটাস অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম বলেন, শেখ হাসিনা তার অর্জন দেশের মানুষকে উৎসর্গ করে দিলেন। কারণ, তিনি এ দেশেরই মাটির কন্যা। এ দেশের মানুষকে তিনি ভালোবাসেন, মানুষও তাকে ভালোবাসে। তাই এত বড় একটি পুরস্কার পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তার মনে হয়েছে, তার মানুষের কথা। এখানেই বঙ্গবন্ধুকন্যার বিশাল হৃদয়ের মহাত্ম্য।ciyi_dhaka_Tony1 2015

সভাপতির ভাষণে মেয়র আনিসুল হক প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে বলেন, আপনি বিশ্বজয়ী। আপনাকে ঢাকাবাসীর অভিনন্দন, দেশের মানুষের পক্ষে অভিনন্দন। বাংলাদেশ জলবায়ু ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। আপনি সেই জলবায়রু বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় যুদ্ধে নেমেছেন। আপনার নেতৃত্বে তৈরি হচ্ছে টেকসই বাংলাদেশ। যে অপ্রতিরোধ্যগতিতে এগিয়ে চলেছে বাংলাদেশ, তাতে আগামীতে পুরো দেশেই গড়ে উঠছে নগরী। নগরীকে সবুজ করে গড়ে তুলতে আমরা পাশে আছি,আপনি এগিয়ে যান। সবুজ নগরী গড়ে তুলতে সিটি কর্পোরেশন সবুজের জন্য প্রতিবছর একজন করে সবুজ মানুষ নির্বাচন করবে।
স্বাগত বক্তব্যে মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, প্রধানমন্ত্রীর চ্যাম্পিয়ন্স দ্য আর্থ পুরস্কার পাওয়ায় দেশবাসী ধন্য হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ সব দিক থেকে এগিয়ে যাচ্ছে। বাসযোগ্য দেশ গড়ে তুলতে শেখ হাসিনা কাজ করে চলেছেন।ciyi_dhaka_Tony2 2015

অনুষ্ঠান শেষে মেয়র আনিসুল হক প্রতিবেদকে জানান, চারটি দিন আমরা সকলেই অক্লান্ত পরিশ্রম করেছি এই সংবর্ধনাকে সুন্দর ও সফল করতে। সময়ের প্রতিকুলতা ও কিছুটা বৈরী আবহাওয়ার জন্য আমরা আরো দুইটি ইভেন্ট দর্শকদের দেখাতে পারি নাই। আজকের এই অনুষ্ঠানটিকে সফল করতে নগরবাসী ও আইন শৃংখলা বাহিনী আমাদের অনেক সহযোগীতা করেছেন। সবার সাহায্য সহযোগীতায় আমরা একটি সফল অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে আমাদের দেশরত্ন প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দিতে পেরেছি। সংবাদ প্রতিবেদকের মাধ্যমে মেয়র আনিসুল হক সবার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ,স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, পানিসম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম, পররাষ্ট্র উপদেষ্টা গওহর রিজভী, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ ও জাহাঙ্গীর কবির নানক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, সংসদ সদস্য, প্রবাসীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশারশতশত মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

 

 

 

MD Majumder
By MD Majumder অক্টোবর ৬, ২০১৫ ০৪:০৫
Write a comment

No Comments

No Comments Yet!

Let me tell You a sad story ! There are no comments yet, but You can be first one to comment this article.

Write a comment
View comments

Write a comment

Your e-mail address will not be published.
Required fields are marked*

সর্বশেষ খবর

আজকের দিন-তারিখ

  • বৃহস্পতিবার ( রাত ৩:৩৬ )
  • ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
  • ২৯ জিলহজ্জ, ১৪৩৮
  • ৬ আশ্বিন, ১৪২৪ ( শরৎকাল )

বাংলা ক্যালেন্ডার

IMG_11152014_10_DEBDUT!